B.Ed 3rd Semester Practicum Bengali Version || Course: 1.3.7B, Pedagogy of Social Science-History || সময়রেখা তৈরির দক্ষতার বিকাশ || Development of skill of Timeline

ভূমিকা (Introduction):

“ইতিহাস হল কালের সন্নিধানে মনের উন্মোচন” (হেগেল)। স্থান ও কালের পটভূমিকায় মানুষের কর্মমুখী কর্মধারা বয়ে চলে দেশে দেশে দিকে দিকে। ইতিহাসের আলোকে বহমান মানবসভ্যতা দুটি মৌলিক সম্বন্ধকে আশ্রয় করে তাৎপর্যপূর্ণ ও অর্থবহ হয়ে উঠে। একটি হল কালের সম্বন্ধ (Time Relation) আর অপরটি হল স্থানগত সম্বন্ধ (Space Relation)

বিচার্ড হাকুলিয়াৎ তাই বলেছেন, “Chronology and Geography are the two eyes of History, the right eye and the left eye of all history” সময় চেতনা ইতিহাসে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ। ইতিহাস শিখনে সময় চেতনা বা কাল চেতনা জাগরণে অন্যতম শিক্ষণ সহায়ক উপকরণটি হল সময়রেখা (Time line)। সময়রেখার মাধ্যমে ইতিহাসের ঘটনাক্রমের ব্যাখ্যা সহজসাধ্য হয়।

সময়ের ধারণা (Concept of Time):

সময়’ একটি বিমূর্ত- চেতনা ছাড়া আর কিছুই নয়। সময়ের এই বিমূর্ততার জন্যই সময চেতনার মধ্যে ব্যক্তি বৈষম্য পরিলক্ষিত হয়। ‘সময়’ সম্পর্কে ধারণা কোনো স্বতঃস্ফূর্ত? থেকে আসে না। ‘সময়’ চেতনা এক ধরনের অনুমিতি (Inference) যা কোনো কিছুর উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠে। তাই সময় রেখার মাধ্যমে কোনো ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সময় চেতনা পরিস্ফুট হয়। কাল অবিনশ্বর, অনাদি ও অনন্ত তাই কোনো আচ্ছাদনের মাধ্যমে কাল স্রোতকে বেঁধে রাখা যায় না। সময়ের বিমূর্ত ধারণা মূর্ত হয়ে উঠে সময় রেখার মাধ্যমে।

সময় চেতনার স্বরূপ ও সময়রেখা (Consciousness and the timeline of Time):

সময় চেতনার তিনটি গুরুত্বপূর্ণ দিক আছে।যেমন

  1. সময় চেতনার দূরত্ববোধ (Distance)
  2. সময় চেতনার ব্যাপ্তি (Duration)
  3. সময় চেতনার অবস্থান (Location)

সময়রেখার প্রস্তুতি এই স্বরূপ অনুযায়ী হওয়া উচিত। সময়রেখার মাধ্যমে যেন সময়ের দুরত্ব ব্যাপ্তি ও অবস্থান পরিস্ফুট হয়।

  1. সময় চেতনার দূরত্ব (Distance of Time):

শিক্ষার্থীর স্থায়ী স্মৃতিতে ইতিহাসের সময়ানুক্রম ধারণের স্থায়ীত্ব নির্ভর করে সময়ের দূরত্বের উপর। দীর্ঘদিন আগে যে ঘটনাগুলি ঘটে তার সময়কাল মনে রাখা কঠিন হয়। কিন্তু বর্তমানের বিভিন্ন ঘটনার সময়কাল সহজে কার্যকরী স্মৃতিতে চলে আসে। এই অসুবিধা দূর করতে। সময়রেখা শ্রেণিকক্ষে ইতিহাসের প্রাচীন ঘটনাবলি স্মরণে রাখতে শিক্ষার্থীদের দক্ষ করে। তোলে।

  1. সময়ের ব্যাপ্তি (Duration of Time):

যে ঘটনা যত বেশি সময় ধরে চলে সেই ঘটনার সময়ের পরিসর সহজে স্মরণে থাকে। তাই কার্যকরী স্মৃতিতে ধারণার জন্য সময়ের ব্যাপ্তি একটি অপরিহার্য শর্ত। স্বল্প ব্যাপ্তিযুক্ত ঘটনার সময় স্মরণে রাখা কঠিন হয়। সেক্ষেত্রে সময়রেখার মাধ্যমে একটি দৃঢ় সময় চেতনার ধারণা তুলে ধরা যায়।

  1. সময়ের অবস্থান (Location of Time):

সময় অনাদি ও অনন্ত। কালস্রোতের মধ্যে যে ঘটনাপ্রবাহ ঘটে সেই ঘটনাগুলির সময়কালের অবস্থান কোথায় তা জানতে সময়রেখার সাহায্য নেওয়া প্রয়োজন হয়।

সময়রেখার মূল্য (The Value of timeline):

সুদৃঢ় অতীতের বিমূর্ত ঘটনাকে মূর্ত করে তুলতে ও শিক্ষার্থীর মনশ্চক্ষুতে সেই ঘটনার কালক্রম প্রস্ফুটিত করতে সময়রেখার কার্যকারিতা অসীম। সময় চেতনার মাধ্যমে ইতিহাসের বিষয়বস্তুর বোধগম্যতা সুস্পষ্ট হয়। শিক্ষার্থীরা ঘটনার কালক্রম অনুধারণ করে অতীতের প্রেক্ষাপটে বর্তমানের বিশ্লেষণ ও ভবিষ্যতের দিক নির্ধারণে দক্ষ হয়ে উঠে।

সময় সারণি (Time Table):

মুঘল সম্রাট বাবর ও হুমায়ুনের শাসনকালের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ও সময়কাল

 

সাল ঘটনা
1525 খ্রিস্টাব্দ বাবরের ভারত আক্রমণ
1526 খ্রিস্টাব্দ প্রথম পানিপথের যুদ্ধ
1527 খ্রিস্টাব্দ খানুয়ার যুদ্ধ
1528 খ্রিস্টাব্দ চান্দেরির যুদ্ধ
1529 খ্রিস্টাব্দ ঘর্ঘরার যুদ্ধ
1530 খ্রিস্টাব্দ বাবরের মৃত্যু ও হুমায়ুনের সিংহাসন আরোহণ
1531 খ্রিস্টাব্দ
1532 খ্রিস্টাব্দ দাদরের যুদ্ধ
1533 খ্রিস্টাব্দ
1534 খ্রিস্টাব্দ সুরজগড়ের যুদ্ধ ও শেরশাহ কর্তৃক বিহারের সিংহাসন লাভ।
1535 খ্রিস্টাব্দ
1536 খ্রিস্টাব্দ শেরশাহ কর্তৃক বাংলা জয়।
1537 খ্রিস্টাব্দ শেরশাহের গৌড় অবরোধ
1538 খ্রিস্টাব্দ শেরশাহের গৌড় জয়
1539 খ্রিস্টাব্দ চৌসার যুদ্ধ
1540 খ্রিস্টাব্দ কনৌজ বা বিহুগ্রামের যুদ্ধ ও শেরশাহের সিংহাসন লাভ

সময় সারণি তৈরির সময় বিভিন্ন সতর্কতা (Various precautions while making time table):

  1. সময় অনস্ত ও অনাদি। তাই সময়ের গতি প্রাবাহে কোনো বাধা বা ছেদ থাকে না।সময় রেখা তৈরির সময় তাই দু-প্রান্ত কোনো রকম বাধা দ্বারা আচ্ছাদিত থাকবে না।দু-প্রান্ত উন্মুক্ত থাকবে।
  2. সময়রেখাকে কয়েকটি ভাগে বিভক্ত করে (প্রতি পাঁচ বা দশ বছর অন্তর) প্রতিবছরের স্কেলিং করতে হবে।স্কেলিং-এর ক্ষেত্রে সমান পরিমাপের উপর গুরুত্ব দিতে হবে।
  3. সাধারণত বাম দিকে সময়কাল ও রেখার ডান দিকে ঘটনার উল্লেখ থাকবে।
  4. বৃহৎ ভাগগুলিকে (পাঁচ বা দশবছর) আলাদাভাবে দেখাতে হবে।
  5. যদি কোনো বছর এর সমান্তরাল কোনো ঘটনা না ঘটে থাকে তাহলে সেই বছর ঘটনার ঘরে(×) চিহ্ন দিতে হবে।
  6. সময়রেখার দুইপ্রান্তে দু-টি তির চিহ্ন ()দিয়ে সময়ের মহাশূন্যতা বোঝাতে হবে।

মূল্যায়ন (Conclution):

সময়রেখার মাধ্যমে ইতিহাসের বিষয়বস্তু উপস্থাপন করলে ইতিহাসের বাস্তবায়ন সম্ভব হয়। ইতিহাসের বিষয়বস্তু সম্পর্কে স্বচ্ছধারণা গঠিত হয়। সময়ের প্রেক্ষাপটে ঘটনার গুরুত্ব ও তাৎপর্য অর্থবহ হয়ে উঠে।তাই সময়রেখার গুরুত্ব অসীম।তবে সময়রেখা সঠিকভাবে নির্মাণ ও উপস্থাপনের উপর এর কার্যকারিতা নির্ভর করে।

Reference:

 পাত্র গৌতম, সমাজবিজ্ঞান শিক্ষণ পদ্ধতি ইতিহাস, রীতা পাবলিকেশন, কোলকাতা

। হালদার ড.তারিণী, সমাজবিজ্ঞান শিক্ষণের পদ্ধতি ও কৌশল, আহেলি পাবলিশার্স, কোলকাতা

 ৩। এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে গ্রহীত তথ্য।

DAS Coaching PDF Download

 

——–

Thank You, 

Visit Our Educational Website Regularly for More updates

 

https://www.dascoaching.in/

 

(Get Free Help B.Ed Study Materials, Practicum, Assignment, Learning Design, Pedagogical Analysis, Case Study, Action Research, School Internship, Teaching Aids Micro Teaching Five Lesson, PowerPoint Presentation & Etc.)

Contact Us On:

Facebook: fb/dascoaching.in

YouTube: DAS Coaching

Mail: contact.dascoaching@gmail.com

Join Telegram Group: DAS Coaching

Whatsapp: 9339697099

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending Posts
-February 23, 2024
-February 22, 2024
Author

Soumen Das

I am SOUMEN DAS, founder of DAS COACHING. I have been associated with this DAS COACHING online educational platform for 4 years. I am a blogger, YouTuber and teacher. I have been involved in teaching profession for 8 years.

Follow Me

Top Picks
Newsletter
Categories
Edit Template

DAS COACHING is the most trustworthy Learning Site in India and West Bengal. Learn with Us and Buy Our E-Books

© DAS Coaching 2024

Design by Krishanu Chakraborty

Contacts

error: Content is protected !!
×

Hello!

Click one of our contacts below to chat on WhatsApp

× How can I help you?